ABOUT US

  • ক্লাসে যাকে সবসময় আঁকতে দেখতাম সে একদিন খুব দুঃখ করেই আমাকে বলেছিলো, “আমি আঁকিয়ে হতে চাই জেনে বাবা খুব খেপেছে আমার উপর। উনি আমাকে ডাক্তার বানাতে চায়।” একটু থেমে আবার শুরু করলো, “আরও বললো, আকিয়েদের নাকি ভাত নেই। আচ্ছা দোস্ত, তুই বল, আমি যদি আমার পছন্দের বিষয়েই কাজ করে যাই তাহলেই আমার সেরাটা দিতে পারবো, ভালো কিছু করতে পারবো। এটলিস্ট শান্তিটা তো পাওয়া যাবে। না? বাবামা’রা কি চায় না আমরা শান্তিতে থাকি?” আমার জবাব ছিলো- “বাবামা’রা অবশ্যই চায় আমরা সুখে শান্তিতে থাকি। তাদের নিজের স্বপ্নের কথা একটু সময় নিয়ে বুঝালে ঠিকই বুঝতে পারবে” – ঘটনাটা খুব নাড়া দেয় আমাকে।
  • বাবামা এবং তাদের সন্তানের মাঝে যে জেনারেশন গ্যাপ সেটা প্রভাব ফেলে সন্তানের স্বপ্নের ওপর। তখন ব্যপারটা হয়ে যায় এমন যে বাবামা চায় তার সন্তান হোক ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার কিন্তু সন্তান চায় ফটোগ্রাফার হতে। ঠিক এই সমস্যাটায় কাজ করে রিফ্লেক্টিভ টিনস। রিফ্লেক্টিভ টিনস এখানে বাবামা ও সন্তানের মাঝে মধ্যস্থতা করে ও তাদের মাঝে ব্রিজ করে দেয়।
    রিফ্লেক্টিভ টিনস এর একটি জরিপ বলছে ৮৯% কিশোর-কিশোরীকে বাবামা সরাসরি প্রভাবিত করে বাবামা’র স্বপ্নকে অনুসরণ করতে। যার ফলে তাদের প্রত্যেকের যে ব্যক্তিগত স্বাতন্ত্রিকতা রয়েছে সেটাকে তারা হারিয়ে ফেলে। যার ফলে তারা ডিপ্রেশন, মাদকাসক্তি, অন্তর্জালের প্রতি আসক্তি, বাবামাকে অপছন্দ করা ইত্যাদি সহ নানা সমস্যার মুখে পড়ে।
    রিফ্লেক্টিভ টিনস এর অন্য একটি জরিপ বলছে প্রফেশনালদের মধ্যে যারা কিশোর বয়সে সহশিক্ষা কার্যক্রমে যুক্ত ছিলো, ৮৭% ক্ষেত্রে তারা অফিসের অন্যান্যদের তুলনায় প্রোডাক্টিভ।
    এ থেকে বুঝা যায় সন্তানদের পড়াশুনার পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রমে যুক্ত থাকাটা কতোটা জরুরি। এটি শুধু তাদের মনকে ভালো রাখবে না, একসাথে অনেক খারাপ কাজ থেকে মুক্তি ও কর্মজীবনে সফল হতেও সাহায্য করে।
    এই সমস্যার সমাধানের লক্ষ্যে রিফ্লেক্টিভ টিনস এর রয়েছে একটি বছরব্যাপী পাঁচ ধাপের উদ্ভাবনী সমাধান। প্রতিটি ধাপ আবার কিছু প্রজেক্টের সমন্বয়ে গঠিত। পুরো বছরের রিফ্লেক্টিভ টিনস এর সদস্যগন কয়েকটি দলে ভাগ হয়ে কাজগুলো সম্পাদন করে।
    PAIN POINT
    ———————————————
    আমাদের জরিপ বলছে ৮৯ শতাংশ ছেলেমেয়েকে তাদের বাবা-মা শুধুমাত্র ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার বানানোর জন্য জোর জবরদস্তি করে। এতে করে ছেলেমেয়েরা নিজেদের যে স্বতন্ত্র সত্তা সেটাকে হারিয়ে ফেলে। এভাবে তাদের আত্নার মৃত্যু ঘটে।
    THE SOLUTION
    ———————————————-
    reflectiveTEENS একদিকে যেমন প্রতিভাবান কিশোরদের প্রতিভার প্রকাশ, বিকাশ, পরিচর্যা এবং কিশোরদের সাথে অপরচুনিটির সংযোগের প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করে, একই সাথে বাবামাদের মাঝে তাদের সন্তানদের স্বপ্নের গুরুত্ব ও তাদেরকে নিজের স্বপ্নের সাথে চলতে দেয়ার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরতেও কাজ করে।
    THE PROCESS
    ———————————————-
    source > platform > incite > level up > awareness
    ACTIVITIES
    ———————————————-
    * Web Magazine
    > কিশোরদের পাঠানো বিভিন্ন সৃজনশীল কাজ, অনুপ্রেরণা ও সচেতনতামূলক কন্টেন্ট প্রকাশ করা করা হয় এই ওয়েব ম্যাগাজিনে।
    * Monthly Creative Campus
       Competition
    > যেকোন কিশোর তার করা সৃজনশীল কাজগুলো নিয়ে এই মাসিক কন্টেস্টে অংশ নেয় ও পুরষ্কারকৃত করা হয়।
    * rt teen support desk
    > এর মাধ্যমে কোন কিশোর তার মানসিক, পারিবারিক বা সামাজিক সমস্যার কথা আমাদের পাঠায়। যার উত্তর দেয় বিশেষজ্ঞগণ।
    * rt Talks
    > এ টকস সেশনে অভিজ্ঞদের আমন্ত্রণ জানানো হয় তাদের কৈশোরের অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করার জন্য।
    * YearBook
    > ওয়েব ম্যাগাজিনে বছরজুড়ে পাঠানো সব সৃজনশীল কাজ থেকে বাছাই করে সেসব নিয়ে প্রকাশ করা হয় এই ইয়ারবুক।
    * rt Creative Camp
    > আমাদের MCCUBE এর প্রতিমাসের সেরা তিনজনকে বছর শেষে বিশেষজ্ঞদের সাথে নিয়ে আয়োজন করা হয় সপ্তাহব্যাপী এই আবাসিক ক্যাম্প।
    * rt Innovation Fund
    > প্রতিভাবান কিশোরদের প্রতিভার বিকাশের লক্ষ্যে এই ফান্ড প্রতিভাবানদের বই প্রকাশ, প্রদর্শনী আয়োজন ইত্যাদিতে ফান্ডিং করে থাকে।

Use Facebook to Comment on this Post